ভোলার ডেঙ্গু রুগিদের পাসে মশারি নিয়ে সচেতন নাগরিক পরিষদ

0
44
  1. মনজু ইসলাম/ মাসুদ রানাঃ

ভোলায় হাসপাতালে গরিব রুগীদের মাঝে মশারি বিতরণ করেছেন ভোলার সচেতন নাগরিক পরিষদ। জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লবের সার্বিক সহয়তায় জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জহুরুল ইসলাম নকিব প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভোলা সদর হাসপাতালের প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গিয়ে মশারি বিতরণ করা হয়।

ভোলায় ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ভোলা সদর হাসপাতালের প্রাথমিকভাবে দুইশত গরিব রোগীর মাঝে মশারি বিতরণ করা হয়েছে পরবর্তীতে জেলার প্রতিটি হাসপাতাল বেড়িবাধ আশ্রয়ন প্রকল্প নদীরপাড়সহ প্রতিটি গরিব মানুষের কাছে মশারি বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ভোলার প্রতিবাদি বিবেক ভোলা সচেতন নাগরিক পরিষদের সাধারন সম্পাদক সফিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ভোলা জেলা সিভিল সার্জন ডা. রথীন্দ্রনাথ মজুমদার এর সভাপত্বিতে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম নকীব প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ডেঙ্গু যে ভাবে মহামারি আকারে রুপ নিতে ছিলো ঠিক সেই সময় মহান আল্লাহর রহমতে আর বঙ্গবন্ধু কন্যার একান্ত চেষ্টায় আর সচেতন নাগরিক পরিষদের মত সেচ্ছাসেবী সংগঠন গুলো এগিয়ে আসায় ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রন সম্ভব হয়ে ছিলো। আমরা ভোলর সকল দুর্যোগে সবাই একসাথে কাজ করে গেলে সকল দুর্যোগকালীন সময় সফলতার সাথে মোকাবেল করা সম্ভব বলেও জানিয়েছেন ভোলা আওয়ামী লীগের সফল সংঘঠক জহুরুল ইসলাম নকিব।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সচেতন নাগরিক পরিষদ এর সভাপতি ভোল বারের বাব বার নির্বাচিত সভাপতি জিপি এ্যাডভোকেট নরুল আলম নুরনবী, ভোলা সচেতন নাগরিক পরিষদ এর সাধারণ সম্পাদক মো. সফিকুল ইসলাম, ভোলা নিউজের প্রধান সম্পাদক পশ্চিম বাপ্তা আদর্শ স্কুল এন্ড কলেজ এর অধ্যক্ষ মোঃ রফিকুল ইসলাম, প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করা একমাত্র এনজিও বাধনের পরিচালক নওশাদ মুন প্রমুখ।
পরে অতিথিরা হাসপাতালের প্রতিটি ওয়ার্ড ঘুরে ঘুরে হাসপাতালে ভর্তি গরিব রোগীদের মাঝে মশারি বিতরণ করেন।

এসময় সবাইকে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি ডেঙ্গু মশা থেকে রক্ষার জন্য দিনে অথবা রাতে ঘুমানোর সময় অবশ্যই মশারি ব্যবহার করার আহবান জানান সচেতন নাগরিক পরিষদের সম্পাদক সফিকুল ইসলাম তিনি দুঃখ প্রকাশ করে আরো বলেন সরকারি বড় বড় কর্তা ব্যাক্তিরা লোক দেখানো পরিস্কার রাস্তায় ময়লা ফেলে ঝাড়ু দেয়া ও ক্যামেরা মিশন বাদ দিয়ে ডেঙ্গু প্রতি রোধে কার্যকরি পদক্ষেপ নেয়ার আহব্বান জানান, সাথে সাথে এই কার্যকরী কর্মসুচী বাস্তবায়নে সার্বিক সহয়তার জন্য ভোলার তারুন্যের অহংকার জেলা আওয়ামীরীগের সফল সংঘঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লবকে ধন্যবাদ জানান।
এছাড়া ভোলায় ২০৪ জন ডেঙ্গুরুগী ভর্তি হলেও তাদের অধিকাংশ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন বলেও জানিয়েছেন মশারি বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতি জেলা সিভিল সার্জন ডা. রথীন্দ্রনাথ মজুমদার। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হলে আতঙ্কিত না হয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়ার কথাও বলেন এ নিবেদিত প্রাণ সিভিলসার্জন।

পরে ৭৫ এর ১৫ আগষ্ট ঘাতকের হাতে বঙ্গবন্ধুসহ নিহত সকলের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মুনাজাত করে প্রথম দিনের কর্মসুচী সমাপ্ত ঘোষনা করেন সচেতন নাগরিক পরিষদের সভাপতি জিপি নুরুল   আলম নুরনবী।