ভোলার দৌলতখানের মেঘনায় চোরাই কারবারিদের তেলের খনি

ি

0
200

মিলি শিকদার,দৌলতখান থেকে ফিরেঃ
ভোলার দৌলতখানের মেঘনা নদীতে চোরাই কারবারীদের তেলের খনি পাওয়া গোছে। দৌলতখানের চোরাচালানী সিন্ডিকেট তেল পাচারে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। চট্রগ্রাম থেকে নৌ-পথে আসা সরকারি মালিকানাধীন তেল বহনকারী জাহাজ থেকে প্রকাশ্যেই অবৈধভাবে নামছে ভোজ্য-জ্বালানী তেলসহ অনান্য চোরাই সামগ্রী। গত সোম ও বুধবার ২ দিনে প্রায় শতাধিক ব্যারেল তেল পাচার হওয়ার অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।
বুধবার দুপুর ২ টায় দৌলতখান পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড বটতলা মাছঘাট এলাকায় গেলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চোরাকারবারী আঃ হাকিম, মনির ও হারুন হাওলাদারের নেতৃত্ব দিয়ে জাহাজ থেকে ট্রলারে করে বটতলা মাছঘাট এলাকায় অবৈধ ভাবে সরকারী তেল এনে ব্যারেল ভর্তি করে ভ্যান-যোগে নিজস্ব গোডাউনে নিয়ে যায়ন। পরবর্তীতে গোডাউন থেকে এসব তেল বিক্রি করে ভোরা জেলার বিভিন্ন বাজারে ।
প্রত্যক্ষদর্শীরা আরো জানায়, দৌলতখানের চৌকিঘাটা, পৌরসভার ১, ৩ , ৬ নং ওয়ার্ড ও মাছঘাট, বটতলা, সুইজ গেইটসহ বিভিন্ন যায়গা দিয়ে চোরাকারবারিরা অবাধে তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী নামাচ্ছে। এভাবে প্রতিদিন সরকারের কোটি-কোটি টাকার তেল পাচারের বিষয়টি এখন অনেকটাই হরহামেশা ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে । স্থানীয়রা এ ধরনের ওপেন সিক্রেটস চোরাই কারবারের জন্য প্রশাসনকেও দায়ি করেছেন। তারা দৌলতখানের চোরাই কার্বার বন্ধে উর্ধতন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপও কামনা করছেন।