অন্ধকারে ভোলা পৌরসভা দুর্গন্ধে নাকাল বাসিন্দারা

0
222

জামিল হোসেনঃ
দ্বীপ জেলা ভোলার আধুনিক পৌরসভার সকল কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছেন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। সকল সেবা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে এতথ্য নিশ্চিত করেন ভোলা পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের সভাপতি মীর আলাউদ্দিন। এতে অন্ধকারে পতিত হয়েছে ভোলা পৌরসবা। নাগরিক সেবা বন্ধ থাকায় পবিত্র রমজানে মানবেতর অবস্থায় পরেছেন পৌর নাগরিকরা।

বৃহস্পতিবার (৯মে) সকাল থেকে ভোলা পৌরসভার সকল কার্যক্রম এবং নাগরিক সেবা বন্ধ করে দেয় কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ভোলা পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন এর মীর সভাপতি আলাউদ্দিন নোটিশের মাধ্যমে জানান, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ পৌরসভা পরিদর্শণকালে পৌরসভার ভাবমূর্তি বিনষ্ট করা, পৌর প্রশাসন পরিচালনায় কতিপয় কাউন্সিলরের অযাচিত হস্তক্ষেপ এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে অসদাচরণ এর প্রতিবাদে পৌরসভার সকল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হইয়াছে।

এদিকে, ভোলা পৌরশহর এবং সকল সড়কের লাইটিং সন্ধ্যা থেকে বন্ধ দেখা যায়। এতে চরম আকংকে রয়েছে পৌর নাগরিকরা। এছাড়ও ময়লা আবর্জনা পরিস্কার না করায় সাজাঁনো শহরটি দুগর্ন্ধের শহরে পরিনত হয়েছে।

এব্যাপারে ভোলা পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ মঞ্জুরুল আলম জানান, সচিবের রুম থেকে একটি এসি চুরি হয়েছে। পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী জসিম উদ্দিন আরজু বিরুদ্ধে মামলা করতে বলেছি এসি চুরির অভিযোগে। সচিব মামলা করেনি এজন্য সচিবকে রাগ করেছি। তারপর এসি চুরির অভিযোগে আমি বাদি হয়ে মামলা করেছি।

এ বিষয়ে সচিব আবুল কালাম আজাদ জানান, এসিটি নির্বাহী প্রকৌশলী জসিম উদ্দিন আরজু তিনি নিজের অর্থ দিয়ে কিনেছিল।চুরি হয়নি তার এসি, সে খুলে নিয়ে গেছে। এছাড়া আমি আর কিছু জানিনা।