লালমোহন ওসির মহানুভবতায় ১০ বছর পর মা পেল মেয়ে

0
88

এনামুল হক রিংকুঃ

ভোলার লালমোহনে হারিয়ে যাওয়া ইয়াছমিন নামে এক তরুনীকে প্রায় দশ বছর পর লালমোহন থানার ওসির সহায়তায় তার পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিলেন ।শুক্রবার বিকেলে ওই তরুণীকে তার মায়ের কাছে হস্তান্তর করেন লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবীর। ইয়াছমিনের বাড়ি উপজেলার চরভূতা ইউপির গোয়ালখালী জনু সর্দার বাড়ির । তার পিতার নাম আলমগীর ।
ইয়ানূরের মা বলেন, আমাদের পরিবারের অভাব অনটনের কারণে ২০০৯ সালে ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকার এক বাসায় কাজ করতে দেই মেয়েকে। সেই বাসা থেকে হঠাৎ করে এক দিন হারিয়ে যায় ইয়াছমিন। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও কোনো খোঁজ পাইনি ইয়াছমিনের । ২২ ই ফেব্রুয়ারি রোজ শুক্রবার সকালে লোক মুখে জানতে পারি লালমোহন থানায় একজন হারানো মেয়েকে রাখা হয়েছে। খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে দেখতে পাই ওই মেয়েই আমাদের হারানো মেয়ে। গত দশ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া আমাদের ইয়াছমিন। লালমোহন থানা পুলিশ এভাবে আমার মেয়েকে ফিরে পেতে সহযোগিতা করায় আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
এ ব্যাপারে লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবীর বলেন, রংপুর থেকে আমার কাছে একটি ফোন আসে। সেখান থেকে জানানো হয় লালমোহনের একজন মেয়ে তাদের কাছে রয়েছে। পরে তারা ইয়াছমিনকে লালমোহন থানায় পাঠিয়ে দেয়। মঙ্গলবার সকালে ইয়াছমিন লালমোহন থানায় আসে। তখন থেকে ইয়াছমিনকে পুলিশি হেফাজতে রাখা হয়। স্থানীয়দের মাধ্যমে অনেক চেষ্টার পর সকালে ইয়াছমিনের পরিবারের সন্ধান পাওয়া যায়। পরে বিকেলে তার মায়ের কাছে ইয়াছমিনকে হস্তান্তর করা হয়।