সামাজিক অঙ্গনের সংবর্ধনায় ভাসছে ভোলার এসপি মোকতার পিপিএম,

0
229

আল-আমিন এম তাওহীদ, ভোলানিউজ.কম,

দ্বীপ জেলা ভোলায় প্রায় ২০লাক্ষ মানুষের বসবাস রয়েছে। এ জেলাতে অনেক সরকারি কর্মকর্তা আসছেন গেছেন। এমনকি পদ-পদবীও পেয়েছেন। তার পাশে পদন্নতিও পেয়েছেন। তবে এ জেলাতেই জম্ম নিয়েছেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক সহচর ভোলার মাটি ও মানুষের নেতা তোফায়েল আহমেদ এমপি।

কিন্তু ২০১৬ সালে ভোলায় পুলিশের অভিবাবক হিসেবে যোগদান করেন মোঃ মোকতার হোসেন। মাদক,জঙ্গিবাদ,সন্ত্রাস দমনে জিরো ট্রলারেন্স রয়েছেন। অপরাধ ঘটার সাথে সাথেই এ্যাকশন চলে আসে এসপি মোকতারের। শান্তিপ্রিয় জেলা হিসেবে গড়তে পিছ-পা দেননি মোকতার। বিভিন্ন সময়ে হুমকির সাথে মোকাবেলা করে সুন্দর সমাজ ও সুষ্ঠ জেলা ভোলা গড়তে অগ্রনী ভুমিকা পালন করেন।

এসকল কাজের প্রতিদান পেয়েছেন পিপিএম সেবা পদক, পুলিশ সপ্তাহ অনুষ্ঠানে তার পিপিএম সেবা পদকে ভুষিত করা হলে বিষয়টি বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুকে ১মিনিটে ভাইরাল হয়ে একের পর এক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানাতে থাকে।

ভোলা জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে দেখা যায় নানা সংগঠনের নানা রঙ্রের ফুলের ভালবাসা আর সংবর্ধনা।সেই সাথে দেয়াও হয়েছে অনেকটি শূভেচ্ছা স্মারক।

ভোলার নিম্ম থেকে উচ্চ পর্যায়ের সংগঠন আর সামাজিক অঙ্গনের পক্ষ থেকে পুলিশ সুপারের কার্যালয় কানায় কানায় ভরে উঠে ফুলের শত শত তোরা আর শুভেচ্ছা। তবে বিগত দিনে ভোলায় সরকারের বড় কোন কর্মকর্তা এরকমের ভালবাসার সংবর্ধনা পায়নি বলেও জানান সাধারণ মানুষ।

বিষয়টি ভোলার ইতিহাসের পাতায় এই প্রথম অর্জন আর সংবর্ধনা দেখেই অবাক হওয়ার মতো। তবে এতোটুকু ভোলার মানুষের ভালবাসা অর্জন আর আইন শৃংঙ্খলা রক্ষায় ভুমিকা অপরিসীম ভূমিকা থাকায় পেয়েছে এ ভালবাসা।

ভোলা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মোকতার হোসেন-পিপিএম সেবা তিনি বলেন, ভোলা একটি শান্তিপূর্ণ জেলা। এ জেলায় একজন তোফায়েলের জম্ম। কোন প্রকারে অপরাধীদের ছাড় নয়। মাদক,জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, দূর্ণীতি দমনে কঠোর অবস্থানে পুলিশ। যদি কোন পুলিশও কোন অপরাধের সাথে জড়িত থাকে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কারন আগে নিজের ঘর ঠিক করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, ভোলার মানুষ আমাকে খুব ভালবাসে। তাদেরকেও আমি অনেক অনেক ভালবাসি। ভোলার মানুষের জন্য এসপি মোকতারের দড়জা ২৪ঘন্টা খোলা।ভোলাকে মাদকমুক্ত জেলা গড়তে নিজের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও চেষ্টা করবো। যেখানেই চারকী করি সেখানের মাটিকে নিজের আপন মাটি হিসেবে সব সময় নজরে দেখি। কারণ মানুষের বসবাস যেখানেই হোক সেখানের মাটিকে আপন চোখে দেখলে সবার সাথে মিলেমিশে চলা যায়। ভোলার উন্নয়নের রুপকার গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এমপি তিনিও বলেছেন ভোলা হবে বাংলাদেশের মধ্যে একটি শ্রেষ্ঠ জেলা।

(আরজে, ১৩ফেব্রু-২০১৯ইং)