ধর্ষণের পর শিশুর মাথা থেঁতলে হত্যায় কিশোর

0
72

ডেস্ক: ভোলানিউজ.কম,

গাজীপুরে জঙ্গলে উদ্ধার করা শিশুটিকে ধর্ষণের পর মাথা থেঁতলে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। আর এই ঘটনায় পাঁচ বছর বয়সী শিশুর খালাতো ভাই জড়িত বলেও তথ্য মিলেছে।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখায় এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১ অধিনায়ক সারোয়ার-বিন-কাশেম।’

বুধবার রাতে সাড়ে ১১ টার দিকে গাজীপুরের টঙ্গীর বোর্ডবাজার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরকে। গাছা থানার শরিফপুর এলাকার জঙ্গলে শিশুর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় তাকে ধরা হয়।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক জানান, গত ২৭ জানুয়ারি শরিফপুর এলাকায় একটি কাঁশবনে শিশুটির মরদেহ পাওয়া যায়। শিশুটি স্থানীয় একটি কিন্ডার গার্টেনে নার্সারিতে পড়ত।

ঘটনার দিন সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে শিশুটি তার বাসার পাশে নানার বাড়িতে গোসল করতে যায়। সে আর না ফেরায় পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করে। ওই দিন বিকাল তিনটার সময়ে তার মরদেহ পাওয়া যায়।

র‌্যাব সারোয়ার জানান, গ্রেপ্তার কিশোর স্থানীয় তাকফিয়াতুল উলুম মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র। ঘটনার দিন সে তার বাবার কর্মস্থল থেকে ফিরছিল। পথে নিহত শিশুটির সঙ্গে দেখা হয়। মেয়েটিকে ফুসলিয়ে বাড়ির পাশে কাশফুলের জঙ্গলে নিয়ে যায়।

সেখানে ধর্ষণ করা হলে শিশুটি এই ঘটনা ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দেয়। এ সময় কিশোরটি ইট দিয়ে তার মাথা থেঁতলে দেয়। পরে মরদেহ সেখানে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।’

(আরজে, ৭ফেব্রু-২০১৯ইং)