ভোলায় মুয়াজ্জিনের রহস্যজনক লাশ উদ্ধার

0
720

বিশেষ প্রতিনিধি, ভোলানিউজ.কম,

ভোলা সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের বালিয়াকান্দি জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন নুরে আলম (২৮) নামে গলায় ফাসঁ অবস্থায় লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।

রবিবার (৩ফেব্রুয়ারী) দুপুর ২টার দিকে ওই মসজিদের পাশে মুয়াজ্জিনের রুম থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়সুত্রে জানায়, দুপুরের আযান দেয় মুয়াজ্জিন। এরপরে মসুল্লিরা জামায়াতে নামাজ পড়তে এসে মুয়াজ্জিনকে দেখতে পায়নি, অনেক ডাকাডাকির পরও না পেয়ে মুসুল্লিারা মুয়াজ্জিনের রুমে গিয়ে দেখেন জানালার গ্রিলের সাথে গলায় রশি লাগানো অবস্থায় লাশ ঝুলসে। পরে ভোলা সদর মডেল থানার পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

মুয়াজ্জিনের পরিবারসূত্রে জানায়, গত ২মাস আগে বিবাহ করে। সুখে শান্তিতে ঘর সংসার করছে। তার স্ত্রীর সাথেও কোন ঝগড়া বিবাদ হয়নি। পারিবারিকভাবেও কোন ঝগড়া বিবাদ ছিল না। হঠাৎ করে এমন মৃত্যু মেনে নেয়া যায় না। কেন মারা গেল জানিনা। মনে হয় কেউ মেরে এমনভাবে ঝুলিয়ে রেখেছে।

মুয়াজ্জিন নুরে আলম বাপ্তা ইউনিয়নের বাসিন্দা মোসলেহ উদ্দিনের ছেলে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কেউ হত্যা করে এমনভাবে ঝুলিয়ে রাখছে। যেহেতু পাশে একটি খাট, জানালা, এবং পা দুটি সম্পূর্ণ মাটিতে রয়েছে।

এবিষয়ে ধনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ এমদাদ হোসেন কবীর জানান, দুপুরের দিকে খবর শুনে দৌড়ে এসে দেখি মুয়াজ্জিনের রুমের জানালার সাথে লাশ ঝুলসে। তারপর থানা পুলিশকে খবরে দেই। মুয়াজ্জিন অত্যান্ত একজন ভাল মানুষ ছিলেন। দীর্ঘ ৮বছর এই মসজিদে নামাজ পড়ায়। তার মৃত্যু কোনভাবেই মেনে নেয়া যাচ্ছেনা।

ভোলা সদর মডেল থানার পুলিশ উপ-পরিদর্শক ছগির জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মর্গের রিপোর্ট না আসা পযর্ন্ত বলা যাবেনা। তবে মৃত্যুটি মনে হচ্ছে রহস্যজনক।

(আরজে,৩ফেব্রু-২০১৯ইং)