ভোলায় বখাটের আ্যাসিড নিক্ষেপ, মালা যন্ত্রনার বাঁধ ভেঙ্গে মালা না ফেরার দেশে,

0
675

আল-আমিন এম তাওহীদ, ভোলানিউজ.কম,

ভোলায় বখাটের অ্যাসিড নিক্ষেপে শরীরের বিভিন্ন অংশ ক্ষত-বিক্ষত হলেও ইচ্ছে ছিল তানজিম মালার বেঁচে থাকার। অ্যাসিড নিক্ষেপে দগ্ধ মালা ও তার ছোট বোন উন্নত চিকিৎসার জন্য দীর্ঘ কয়েকমাস চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি ছিল। তবে বখাটের এসিড নিক্ষেপের ভয়াবহতা ছিল জলন্ত আগুনের মতো। বেঁেচ থাকার জন্য মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়া অ্যাসিড দগ্ধ তানজিম মালা (১৬) গতকাল রাতে অবশেষে ব্যর্থ হয়ে জগতের মায়া মমতা ছেড়ে চলে গেল না ফেরার দেশে।

গতকাল শনিবার (৭ জুলাই) রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানী সিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওপার দেশে পাড়ি জমান অ্যাসিড দগ্ধ তানজিম মালা। এদিকে, তানজিম মালার মৃত্যুর ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শোকের মাতম নেমে আসে।

উল্লেখ্য, গত ১৪ মে দিবাগত রাতে ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিগলদী ইউনিয়নে ঘুমন্ত অবস্থায় মহব্বত নামে এক বখাটে এসিড নিক্ষেপ করে তানজিম (১৬) ও তার ছোট বোন মারজিয়ার (৭) ওপর। এঘটনায় পরদিন ভোলা সদর মডেল থানায় তানজিম মালার ‘‘মা’’ মামলা করেন। এসিড দগ্ধ দুইবোনকে উদ্ধার করে প্রথমে ভোলা সদর হাসপাতালে আনলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম) পাঠানো হয়। এরপরে শেবাচিম হাসপাতালের চিকিৎসকরা উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠায়।

ভিকটিমের পরিবার সূত্রে জানাযায়, গতরাত ২টার দিকে বসত ঘরের জানালা দিয়ে সন্ত্রাসীরা এসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়।

এসিড নিক্ষেপের ঘটনার দিন খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন ভোলা জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মোকতার হোসেন। এসময় তিনি বলেন, অ্যাসিড সন্ত্রাাসীদের গ্রেফতার করার জন্য চেষ্টা চলছে। এঘটনায় জড়িতরা খুব তাড়াতাড়ি গ্রেফতার হবে।

গত ২৬ মে অ্যাসিড নিক্ষেপের মূলহোতা মহব্বত হাওলাদার অপুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশের জিজ্ঞেসাবাদে অ্যাসিড নিক্ষেপের কথা স্বীকার করে মহব্বত হাওলাদার অপু। গ্রেফতারকৃত আসামি মহব্বত হাওলাদার অপু ভোলা সদর উপজেলার দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ মানিক মিয়ার ছেলে। অপু ভোলা সরকারি কলেজের ইকোনোমিক্স বিভাগের অনার্সের ছাত্র।

এঘটনায় জড়িত মহব্বত হাওলাদার অপুর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাাইব্যুনালের ৯/৪ (১), ৩০ ধারার মামলায় জেলহাজতে পাঠায় পুলিশ। পরদিন ভোলা জেলা ও দায়রা জজ আদালতেও ১৬৪ ধারায় অ্যাসিড নিক্ষেপের কথা স্বীকার করে মহব্বত হাওলাদার অপু।

তানিজম মালার মরদেহ (৮জুলাই) বিকেলে ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিগলদী ইউনিয়নে নিজ বাড়িতে দাফন করা হবে জানিয়েছেন স্বজনরা।

(আল-আমিন এম তাওহীদ,৮জুলাই-২০১৮ই)